চিশতিয়া তরীকার সাজরা শরীফ

সাজরা পাঠের নিয়ম

সাজরা শরীফ পাঠকারী বলিবে- সত্য সহায় হউক সর্ব জীবে।

শ্রবণকারীগণ বলিবে- সত্য সহায় হউক সর্ব জীবে।

সাজরা শরীফ পাঠকারী বলিবে- লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুলাল্লাহ।

শ্রবণকারীগণ বলিবে- রাসুল সহায় হউক সকল কাজে।

সাজরা শরীফ পাঠকারী বলিবে- লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুন নবিউল্লাহ।

শ্রবণকারীগণ বলিবে- নবী সহায় হউক সকল কাজে।

সাজরা শরীফ পাঠকারী বলিবে- লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুর্শিদ হেদায়েতুল্লাহ।

শ্রবণকারীগণ বলিবে- মুর্শিদ সহায় হউক সকল কাজে।

এর পর সাজরা শরীফ পাঠকারী পাঠ করিবে-

১। হে প্রভু, তুমি আমাদিগকে সৃষ্টি করেছো। ২। প্রতিপালন করছো  ৩। শান্তি পথের সন্ধান দিয়েছো  ৪। মুর্শিদের হাতে হাত রেখে বাইয়াত হওয়ার তৌফিক দান করেছো  ৫। সত্য ও সরল পথে চলার ক্ষমতা দিয়েছো  ৬। অনুগ্রহ করে আমাকে পথভ্রষ্ট করিও না  ৭। আখিরাতে শাস্তি প্রাপ্তদের অন্তর্ভুক্ত করিও না।

এরপরে সাজরা শরীফ ধীরে ধীরে শেষ করিবে

১। এলাহি বাহুর মতে সৈয়দে কত্তনেন রাসুল আস সাকলায়েন আহাম্মদে মুজতবা মোহাম্মদে মোস্তফা সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম।

২। এলাহি বাহুর মতে মারেফাতুল উলুম এমামোল মাতলুবু আল মাশরেকো ওয়াল মাগরেবো আসাদুল্লাহেল গালিব আলী ইবনে আবি তালিব করমুল্লাহে ওয়াজহু।

৩। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ আবি উন নসর হযরত খাজা হাসান বসরি আল আনসারি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৪। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ আবিউল ফজল হযরত খাজা শেখ আব্দুল ওয়াহেদ বিন যায়েদ রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৫। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ আবুল ফয়েজ হযরত খাজা ফুযায়েল বিন আয়াজ রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৬। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ আমান আল্লাহুল আরদে হযরত খাজা সুলতান ইব্রাহীম আদহাম বলখি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৭। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ শহিদুদ্দিন আল হাদ্দাদ হযরত খাজা হোযাইফাতুল মারইশি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৮। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা আমিন উদ্দিন আবি হোরাইরাতুল বসরি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৯। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা মোমশাদ উলুব্বি দায়নূরী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১০। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সিররে সিলসিলায়ে চিশতিয়া হযরত খাজা শরফুদ্দিন আবু ইসহাক চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১১। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা কুতুবুল হক আবু আহাম্মদ আব্দাল চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১২। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা নাসেরুল হক আবু আহাম্মেদ আব্দাল চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৩। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা নাসেহুল হক উদ্দিন আবু ইউসুফ চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৪। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা মৌদুদ হক চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৫। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা মখদুম হাজি শরীফ উদ্দিন জিন্দানি আল বুখারি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৬। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মোখতোদায়ে আহলে এরফান আবিউন নূর হযরত খাজা ওসমান হারুনি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৭। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ কুতুবুল আরেফিন সাইয়েদেল মাওহেদিন মরদে খোদা খাজায়ে খাজেগান হযরত খাজা মইনুদ্দিন হাসান সঞ্জরি চিশতী সুম্মায়ে আজমেরি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৮। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ বোরহানে চিশতিয়া সাইয়েদেল মজিব হযরত খাজা কুতুব উদ্দিন বখতিয়ার কাকি চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

১৯। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ এমামোল আরেফিন সুলতানুজ জাহেদিন হযরত খাজা শেখ ফরিদ উদ্দিন গঞ্জে শক্কর আউদিহি চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২০। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সুলতানুল আশেকিন রহমাতুল্লিল আলামিন মাহবুবে এলাহি হযরত খাজা নিজাম উদ্দিন আওলিয়া জরিজার বফতবেন মোহাম্মদে বাদায়ুনি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২১। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মুশত গররাক বহরে ওহোদত সামসুল আরেফিন হযরত খাজা নাসিরুদ্দিন চেরাগ দেহলবি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২২। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা কামালোল হক ওয়াদ্দিন বেন ওরফে আলাউদ্দিন মশহুর বা উলামায়ে বাগদাদি চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৩। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা সিরাজ উদ্দিন চিশতী গুজরাটি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৪। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা ইলমল হক আলাউদ্দিন চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৫। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা বাহাউদ্দিন মাহমুদ রাজন চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৬। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা জামালুদ্দিন জুম্মন চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৭। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ হযরত খাজা মোহাম্মদ হসন সাহেব চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৮। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মজহুর আল্লাহুস সামাদ হযরত খাজা মোহাম্মদ সোলতান চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

২৯। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মাশুকে এলাহি কুতুবুল মদিনাতুস শরিফাতে হযরত খাজা এহিয়াল মাদানি চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩০। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মোখল্লাখ বা এখলাকেল্লাহে ওয়াল মোত্তাসিদোবে  আওসাফিল্লাহে হযরত খাজা শাহ কলিমুল্লাহ চিশতী জাহানাবাদি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩১। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সেরাজুল ওয়াসেলিন ফকরুল আশেকিন হযরত খাজা নেজামুল হক উদ্দিন আওরাঙ্গাবাদী চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩২। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ এমামোল মিল্লাতুনদ্দিন ফখরুল আওয়ালিন ওয়াল আখেরিন হযরত খাজা মাওলানা মুহাম্মদ ফখরুদ্দীন ফখরে চেরাগ চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৩। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ গাওয়াস বাহরুবি মা আল্লাহ্‌ হযরত খাজা শাহ মহিবুল্লাহ চিশতী বুখারি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৪। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ তাজুল আওলিয়া ফখরুল আশফিয়া মোতলাইল হক হযরত খাজা সৈয়দ সইদ উদ্দিন সাদেক আলী মোয়ান্নাস আল্লাহু চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৫। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ মোওয়াহে একতায়ে দেলে মনুওয়ার মোহররমে এসরার খফি ও জলি হযরত খাজা মিসকিন আলী আল চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৬। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ কুতুবুল আফতাব  ফরদুল আহাবাব হোফাতুল সাকলায়েন হযরত খাজা শাহ আব্দুল্লাহ চিশতী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৭। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ বুরহানুল আশেকিন মেসবাহুল কামেলিন হযরত খাজা আসাদ আলী শাহ রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৮। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সিরাজুস সালেকিন বদরুল আরেফিন রওশন জমির আরেফ বিল্লাহ হযরত খাজা সৈয়দ শাহ আমির আলী চিশতী নিযামি ফখরি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩৯। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সিরাজুস সালেকিন বদরুল আরেফিন জাহাঙ্গীর নগরী হযরত খাজা শাহ ইয়ার উদ্দিন চিশতী নিযামি ফখরি রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৪০। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ সিরাজুস সালেকিন বদরুল আরেফিন তালিমে হাফেজ শাহান শাহে ঝিটকা শরীফ হযরত খাজা দেওয়ান আব্দুল আজিজ চিশতী নিযামি ফখরি কালবুহ রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৪১। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ দিউয়ানা আল্লাহ্‌ হযরত খাজা মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক আল চিশতী নিযামিয়া আজমিরী সিলসিলায়ে আকুবপুরী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৪২। এলাহি বাহুর মতে শেখল মাশায়েখ কুতুবুল আফতাব, তাসাউফে হাক্কাহ, তালিমে হাফেজ হযরত খাজা মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম ওরফে সেরু পাগলা আকুবপুরী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

 

এরপরে সাজরা শরীফ পাঠকারী বলিবে- হে প্রভু, মুর্শিদে মন নিষ্ঠা রেখো।

শ্রবণকারীগণ বলিবে- যেন তাই হয়।


১। স্বার্থ সিদ্ধির জন্য নেওয়া ছলনাময়ী আশ্রয়টুকুর নামই, প্রেম বা ভালবাসা। সেরু পাগলার বাণী।

২। যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম, নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিযোজিত, সেই ইসলাম বা শান্তি ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। আর- যাহার চিন্তা বাক্য ও কর্ম, নিজের, সমাজের, দেশের তথা বিশ্ব অ-শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিযোজিত, সেই অ-ইসলাম বা অ-শান্তি ধর্মের লোক। তা সে যে সম্প্রদায়েরই হউক না কেন। সেরু পাগলার বাণী।

৩। আস্তিক হলো তারাই- যারা বিশ্বাস করে আল্লাহর অস্তিত্ব আছে। আল্লাহ দেহধারী, তাকে দেখা যায় ও তাকে ধরা যায়।
নাস্তিক হলো তারা- যারা মনে করে আল্লাহ নিরাকার, তাকে দেখা ও ধরা যায় না।
আর যারা বিশ্বাস করে স্রষ্টা বলতে কিছু নাই, তারা মূলতঃ ভণ্ড। সেরু পাগলার বাণী।।

(121) বার পঠিত

8 Responses

  • আবু সাইদ

    গুরুজি>প্রচলিত কোরান মতে তরীকা বলতে কি বুঝাতে চান?তরীকা কত প্রকার এবং কি কি?

    • গুরুজি

      প্রচলিত কোরআনের মতে তরীকা অর্থ পথ, রাস্তা বা পদ্ধতি। প্রচলিত কোরআনের দৃষ্টিতে তরীকা পাঁচটি। যথা- শরিয়াত, তরিকাত, হকিকাত, মারিফাত, অহেদানিয়াত।

  • আবু সাইদ

    গুরুজি>তরিকাত অর্থ যদি পথ বা পদ্ধতি হয়,তাহলে আপনার উক্ত পাঁচটির মধ্যে আবার তরিকাত শব্দ এনেছেন কেন?আর এসব পথ বা পদ্ধতি বিষয়ে,প্রচলিত কোরানের কোন আয়াত দ্বারা রেফারেন্স দিবেন কি?এরকম ভিন্ন ভিন্ন পথের জন্য কি ভিন্ন ভিন্ন স্রস্টা বা নবী বা কিতাব আছে?থাকলে কেমন?

    • গুরুজি

      জীবের দেহ মূলত পাঁচটি উপাদান দিয়ে গঠিত হয়েছে। সে উপাদান গুলির নাম আগুন, পানি, মাটি, বাতাস ও নূর। এই পাঁচটি উপাদান যে রাস্তা, পথ বা পদ্ধতিতে চলে, বা স্বক্রিয়া সম্পাদন করে, সে পথ গুলির নাম যথাক্রমে- শরিয়াত, তরিকাত, হকিকাত, মারিফাত ও অহেদানিয়াত। এলমে তাসাউফের দৃষ্টিতে এই পাঁচটি তরীকা বা পদ্ধতির উপনাম দিয়ে গুরুদের জন্মস্থান ও বংশউপাধি নামের সাথে যুক্ত করে, ঐ পাঁচটি তরীকার এক একটি বিষয়ে জ্ঞান অর্জনকারী হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার কারণে, তরীকার উক্ত পাঁচ নামের উপনাম হিসাবে এই পাঁচটি নাম প্রচার ও প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

  • আবু সাইদ

    গুরুজি>মানব দেহে অবস্থিত গুহ্যমূল,লিঙ্গমূল,নাভীমূল,বক্ষমূল এবং কন্ঠমূল কি সেই পাঁচটি তরীকা বা পথ হতে পারে?

    • গুরুজি

      না! জীবদেহ গঠনের পাঁচ জাত বা উপাদানের ক্রিয়া সম্পাদন পদ্ধতিকে তরীকা বা পথ বা পদ্ধতি বলে। এগুলি দেহের অভ্যন্তরীণ ঘটনা প্রবাহ পথ বা রাস্তা।

  • আবু সাইদ

    গুরুজি>বিস্তারিত বলবেন কি?

    • গুরুজি

      জীবদেহ গঠনের যে পঞ্চ উপাদান, যে প্রক্রিয়ায় ক্রিয়া সমূহ সম্পাদনের মাধ্যমে জীবকে শান্তিতে ও অশান্তিতে রাখে, সেই পাঁচ উপাদানের পাঁচ প্রকার ক্রিয়ার পদ্ধতি সমূহই পাঁচ তরীকা।

Leave a Reply